পড়তে বসলেই কেন ঘুম আসে? এর সমাধান কি?

মনে করুন আপনি পড়তে বসছেন।সেটা হতে আপনার ক্লাসের পড়া কিংবা অন্য কোনো নাটক,উপন্যাস বা সাহিত্যের বই।আপনি পড়া শুরু করলেন কিন্তু বেশিক্ষণ পড়তে পারলেন না।দুনিয়ার সব ঘুম যেন আপনার চোখে এসে হাজির।
হয়তো বা আপনি মনে করেন এই সমস্যাটা শুধু আপনার একার। কিন্তু না আপনার মতো আরো কোটি কোটি মানুষ আছে।যারা এই সমস্যায় ভুগছে।

 

শরীরের ক্লান্তি, অলসতার কারণে এই ঘুম আসে না।বিজ্ঞানীরা এই ঘুমের কারণ ব্যাখ্যা করেছেন তা হলো:-একজন মানুষ যখন বইের লাইন গুলো পড়ে তখন তাকে বার বার ডানে/বামে তাকাতে হয়।সেটাকে আবার উচ্চারণ করে পড়ে কান দিয়ে শুনে মনে রাখার চেষ্টা করতে হয়।

এ সময় আমাদের শরীরের অনেক কার্য সম্পন্ন হয়।আর আমাদের শরীর কান্ত হয়ে যায়।আমাদের মস্তিষ্ক মনে করে শরীরের জন্য এখন ঘুম প্রয়োজন। তাই আস্তে আস্তে চোখের পাতা দুটো লেগে আসে।

 

পড়তে বসলেই যাতে আর ঘুম না আসে,তার কিছু উপায় জেনে নিই।

১/পড়ার পাশাপাশি খাতায় লিখুন।

দীর্ঘ সময় ধরে পড়াশোনা কতে থাকলে নিজের মধ্যে একটা এক ঘেয়েমি এবং অলসতা চলে আসে।ছোট বেলায় আমরা ডেভাবে পড়ার পাশাপাশি খাতায় লিখতাম।ঠিক ভাবে এখনও লিখলে পড়াশোনার ক্লান্তি দূর হবে এবং ঘুম আসবে না।

২/পড়াশোনার ঘর সব সময় আলোকিত রাখা।

পড়ার সময় অনেকে ছোট একটি লাম্প জ্বালিয়ে পড়তে বসে।এতে করে শুধু বইয়ে পড়াটা স্পষ্ট দেখা গেলেও চারপাশে অন্ধকার থেকে যায়। আর এই অন্ধকার ঘুমের জন্য একটা আরামদায়ক পরিবেশ তৈরি করে। ফলে আমাদের ঘুম আসে।তাই পড়ার ঘরে সব সময় বড় একটা বাল্ব লাগাতে হবে।যাতে করে অনেক বেশি আলো দেয়।

৩/চেয়ারের মধ্যে বসে পড়ুন।

আমরা অনেক সময় দেখতে পাই বা নিজেরাই অনেক সময় বিছানার ওপর বসে বসে পড়ি।কিন্তু এতে করে অনেকক্ষণ পড়তে থাকলে আমাদের শরীরে ক্লান্ত হয়ে যায় এবং কোমর ব্যাথ্যা করে।এর ফলে আমাদের মস্তিষ্ক মনে করে শরীরের জন্য ঘুম প্রয়োজন। এমন মুহূর্তে আমরা বিছানায় শুয়ে বা বসে থাকার কারণে শরীরে আরাম অনুভব করে আর আমাদের ঘুম পায়।তাই চেয়ারে বসে পড়া উচিত।

৪/বেশি বেশি পানি পান করুন।

পানি আমাদের শরীরের জন্য অনেক প্রয়োজনীয়।পানি মস্তিষ্ককে আর্দ রাখে। এতে করে পড়া বুঝতে সুবিধা হয়।এছাড়াও বেশি পানি পান করলে বাথরুমে যাওয়ার প্রয়োজন হবে।এতে করে আপনি ঘুমানোর তেমন সুযোগ পাবেন না।

৫/জোরে জোরে শব্দ করে পড়ুন।

৬/রাতের বেলা ভাড়ি খাবার থেকে বিরত থাকুন।

৭/সবাই মিলে এক সাথে -(গ্রুপ স্টাডি) করুন।

৮/পড়ার-লেখার  ফাঁকে ফাঁকে চা/কফি পান করুন।

৯/রাত্রি  বেলা সহজ পড়া পড়ুন।